ইউপি নির্বাচনে দলীয় নমিনেশন প্রত্যাশা করেন মোরশেদ আলম

0 ১৭৯

লক্ষ্মীপুর জেলা ব্যুরো :লক্ষ্মীপুর জেলা চন্দ্রগঞ্জ থানা ১২ নং চরশাহী ইউনিয়নের। মোরশেদ আলম তিনি ১৯৯০ থেকে ১৯৯৩ পর্যন্ত কফিল উদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের, সভাপতি ১ম বর্ষ ।১৯৯৩ থেকে ১৯৯৬। ১২ নং চরশাহী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এর সাধারণ সম্পাদক।১৯৯৬ থেকে ২০০০ পযন্ত ১২ নং চরশাহী ইউনিয়ন যুবলীগ এর সাধারণ সম্পাদক।২০০১ থেকে ২০০৮ পযন্ত
১২ নং চরশাহী ইউনিয়ন যুবলীগ এর যুগ্ন-আহ্বায়ক।২০০৯থেকে ২০১১ পযন্ত
লক্ষ্মীপুর সদর থানা যুবলীগ এর সদস্য।
২০১২ থেকে ২০১৮ পযন্ত লক্ষ্মীপুর সদর যুবলীগ এর যুগ্ন আহ্বায়ক এবং ২০১৯ থেকে অর্দাবদি ।
পর্যন্ত লক্ষ্মীপুর জেলা যুবলীগ এর সদস্য হিসেবে আছেন।তিনি এই পদ-পদবি গুলো ১৯৯০ থেকে এখন পযন্ত অতন্ত্য দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন আসছেনহামলা মামলা জেল জুলুম সকল বাধা পেরিয়ে ।জীবনের শেষ অধ্যায় জনগনের সেবা করবে বলে মনের দিক থেকে সিদ্বান্ত গ্রহন করেন।নব্বই দশকের মাঠ কাপানো রাজপথের পরিক্ষিত নেতা মোরশেদ আলম দৈনিক মাতৃজগত পত্রিকার সাংবাদিক এর সাক্ষাত কালে মোরশেদ আলম বলেন আমি দলের জন্য এত শ্রম-গাম দিয়েছি তার বিনিময়ে কি পেলাম দল থেকে, তাই আমি আশা বাদি দল আমাকে নমিনেশন দিবে ।
চরশাহী ইউনিয়েনের জনগনও তাই পত্যাশা করেন। আমি যদি নমিনেশন পাই তা হলে আমি দলকে আরো শুসংগঠিত করে তুলব এবং এলাকার শান্তি সৃংখলা বজাই রাখব এবং মাদক ইয়াবা সন্ত্রাস কঠিন হাতে দমন করব। জননেত্রী শেখ হাসিনার গ্রাম হবে শহর বাস্তাবয়নে সহযোগীতা করব
জনগনের অর্পিত দায়িত্ব সততার সাথে পালন করব।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.