সত্যের খোঁজে নির্ভূল অনুসন্ধানী

ঈদগাঁও ইসলামাবাদ জলদাশ পাড়ায় সন্ত্রাসী হামলা,ভাংচুর নগদ টাকা ও স্বর্নালংকার লুট, আহত-৪

0

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ সীমানা দেয়াল দেয়াকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে বসতবাড়ি ভাংচুর করে নগদ টাকা ও স্বর্নালংকার লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।এসময় তাদেরকে বাঁধা দিতে গিয়ে আহত হয়েছেন নারীসহ ৪ জন। তাদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার রাত ৮টার সময় কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড জলদাশ পাড়ায় ঘটে এ ঘটনা।আহতরা হলেন বর্নিত ইউনিয়নের জলদাশ পাড়ার বকুল বাশী দাশের স্ত্রী সুশমা দাশ,তার ছেলে আকাশ দাশ, লাল সেন দাশ ও তার স্ত্রী সুনালী দাশ।

অভিযোগে জানা গেছে,গত শুক্রবার রাত আনুমানিক ৮টার সময় একই এলাকার শুধাংশ দাশের ছেলে নিকেল দাশের নেতৃত্বে ১০/১৫ জন লোক বকুল বাশী দাশের ছেলে লাল সেন দাশের সাথে সীমানা দেয়াল নিয়ে কথা কাটাকাটি করেন।একপর্যায়ে একই এলাকার শ্রীপদ দাশ,রামজিদ দাশ,বিল্ল দাশ ও পলাশ দাশ মিলে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঘেরাবেড়া ভাংচুর করে বসতবাড়িতে লুটপাট চালায়।

এসময় অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২ লোক ঘরে প্রবেশ করে আসবাবপত্র ভাংচুর করে নগদ,টাকা ও স্বর্নালংকার লুট করে পালিয়ে যায়।ঘটনার সময় প্রাণ ভয়ে পরিবারের লোকজন পাশের বাড়িতে আশ্রয় নেন।

খবর পেয়ে রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ঈদগাঁও থানা পুলিশ।ক্ষতিগ্রস্থ বাড়ির মালিক বকুল বাশী দাশ বলেন,সীমানা দেয়াল নিয়ে গন্ডগোল লাগল, আর এতেই আমাদের সব কিছু শেষ হয়ে গেল। পালিয়ে কোনোমতে প্রাণ বেঁচে যাওয়া ৬২ বছর বয়সী এ মানুষটি ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে দীর্ঘশ্বাস ফেলে বললেন,দ্যাশ স্বাধীনের পর আমার জীবনে এরকম তাণ্ডব দেখিনি।

নিকেল দাশের নেতৃত্বে ভাংচুর লুটপাট করা হয়েছে বলে বলে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করেন আহত আকাশ দাশ।তবে ঘটনাস্থল গিয়ে অভিযুক্ত কারে বক্তব্য পাওয়া যায়নি।ঈদগাঁও থানার ওসি আবদুল হালিম বলেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উভয় পক্ষকে থানায় আসতে বলা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.