দুই ভাসুর মিলে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে হত্যার ১৮ বছর পর রায়

0 ৫১০,০৯১

নোয়াখালীর সদর উপজেলায় পূর্ব বিরোধে ছোটভাইয়ের স্ত্রীকে হত্যার দায়ে দুই ভাসুরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।দণ্ডিত মাইনুদ্দিন(৪৫) ও সবুজ(৩০)নোয়াখালীর সদর উপজেলার দয়ারামদি গ্রামের বাসিন্দা।

নোয়াখালী জেলা বিশেষ জজ আদালতের বিচারক এনএম মোর্শেদ খান সোমবার(২২ আগস্ট)বিকেল ৪টার দিকে এ রায় ঘোষণা করেন।যাবজ্জীবনের পাশাপাশি আদালত তাদেরকে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং তা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন।রায় ঘোষণার সময় আসামি মাইনুদ্দিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।এরপর তাকে পুলিশ পাহারায় নোয়াখালী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।তবে অপর আসামি সবুজ পলাতক।

আদালতের নথি ও মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ সূত্রে জানা যায়,২০০৬ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি রাতে আসামি মাইনুদ্দিন ও সবুজ গৃহবধূ আমেনা বেগমকে মারধর করে হত্যা করেন।এরপর দ্রুত তার মরদেহ দাফন করেন।

নিহতের মা রোমেনা বেগম বলেন,তারা আমার মেয়েকে হত্যা করে দ্রুত মরদেহ দাফন করে।পরে পুকুরে আমেনার জামা কাপড় ভাসতে দেখা যায়।আঁখি ও টুটুল নামে দুই নাতি তাদের মায়ের মৃত্যুর বর্ণনা দেয়। নিহতের মা বাদী হয়ে ২০০৬ সালের ২১ মার্চ আদালতে মামলাটি করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের নোয়াখালী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের কৌঁসুলি(পিপি)এমদাদ হোসেন কৈশোর বলেন,দীর্ঘ শুনানি শেষে এ মামলায় অভিযুক্ত মাইনুদ্দিন ও সবুজকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।আদালত সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে মামলার রায় ঘোষণা করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.