সত্যের খোঁজে নির্ভূল অনুসন্ধানী

প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা,স্বাস্থ্য,শিল্প ও কৃষির পাশাপাশি খেলাধুলাকেও গুরুত্ব দিচ্ছেনঃ এমপি নাবিল যশোর সদর ৩ সংসদ সদস্য।

0

যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ বলেছেন, খেলাধুলা মানুষের চিন্তা শক্তি, মেধা, বুদ্ধি ও মননকে বিকশিত করে। সুখি, সমৃদ্ধ জীবন গড়তে সহায়তা করে। খেলোয়াড় সহজে বিপথগামী হতে পারে না। সমৃদ্ধ দেশ গড়তে ভাল খেলোয়াড়ের প্রয়োজন। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শিল্প ও কৃষি খাতের পাশাপাশি ক্রীড়াঙ্গণের প্রতিও বিশেষ নজর রয়েছে।

রবিবার (৫ ডিসেম্বর) বিকালে যশোর শামসুল হুদা স্টেডিয়াম ঢাকা সোনালী অতীত ক্লাব ও যশোর সোনালী অতীত ক্লাবের মধ্যে এক দিনের প্রীতি ফুটবল ম্যাচের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে এ কথা বলেন।

আয়োজক প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি বলেন, উন্নত দেশ গড়তে মান সম্মত খেলোয়াড় ও খেলার পরিবেশ সৃষ্টি করা দরকার। খেলোয়াড়দের মাধ্যমে সহজেই জাতির প্রসার ঘটানো সম্ভব। যারা প্রবীণ খেলোয়াড় আছেন তারা নিয়মিত খেলার মাঠে থাকলে ভাল খেলোয়াড় তৈরি করা সম্ভব। সবাই উৎসহ পাবে। তরুণ প্রজন্মের মনোবল আরো শক্তিশালী হবে।

প্রীতি ম্যাচে ঢাকা সোনালী অতীত ক্লাবের কাছে ১-০ গোলে হারে যশোর সোনালী অতীত ক্লাব। ঢাকা সোনালী অতীত ক্লাবের হয়ে খেলেন এক সময়ের জাতীয় দলের মাঠ কাঁপানোর সব তারকা ফুটবলাররা। বৃষ্টি কারণে ম্যাচের সময় ২০ মিনিট নির্ধারিত হয়। ম্যাচের বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে ছিলো উভয় দল। কিন্তু ম্যাচের ১৭ মিনিটের দিকে ঘটে এক বিপর্যয়। জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার মুরাদ আহমেদ মিলনকে ডি-বক্সের মধ্যে জার্সি টেনে ধরে ফেলে দেন যশোরের শান্ত। রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। পেনাল্টি থেকে গোলটি করেন জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় মোহাম্মদ আরমান। নির্ধারিত ২০ মিনিটে শেষে ১-০ গোলে জয়ী হয় ঢাকা সোনালী অতীত ক্লাব।

পুরো ম্যাচটি যশোর শামসুল হুদা স্টেডিয়ামের দর্শক গ্যালারিতে বসে উপভোগ করেন সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান মিন্টু, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল, জেলা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন প্রমুখ।

ম্যাচ শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে দু’দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন যশোর জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি তমিজুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব কবির।

এর আগে কাজী নাবিল আহমেদ সদর উপজেলার অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ফতেপুর ইউনিয়নে ‘বীর নিবাস’ আবাসন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা একে খয়রাত হোসেন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মঈন উদ্দিন মিঠু প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.