বাঁশখালীতে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় ১৩শত জনের বিরুদ্ধে পুলিশের ৩টি মামলা,গ্রেফতার ৭

0 ৫০৯,৭৯৩

বাঁশখালীতে শুক্রবারে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় ওই রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের জ্ঞাত-অজ্ঞাত ১৩ শত নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে পৃথক পৃথক ৩টি মামলা দায়ের করেছেন।এতে বিস্ফোরক আইন,বিশেষ ক্ষমতা আইন এবং সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগ আনা হয়েছে।মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে,ঘটনার সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৬৩ রাউন্ড গুলি ছুঁড়েছিল।

৩টি মামলাতেই দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও বাঁশখালীর সাবেক সংসদ সদস্য সাবেক বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী,তাঁর ছেলে উপজেলা বিএনপির সদস্য মিসকাতুল ইসলাম চৌধুরী বাপ্পাসহ বিএনপি’র জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন নেতা-কর্মীকে আসামী করা হয়েছে।এ পর্যন্ত পুলিশ ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে দক্ষিণ জেলা মহিলাদলের সভাপতি জান্নাতুল নাঈম চৌধুরী রিকু,বাঁশখালী পৌরসভা মহিলা দলের আহ্বায়ক সারাবান তাহুরা কলি,পারভেজ,ইমরান,জোবায়ের,দেলোয়ার হোসেন,আব্দুর রহিম,তারেক।

মামলার পর থেকে বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা গা ঢাকা দিয়েছে।শনিবার এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত পুলিশ সর্বত্র সাড়াশি অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

বাঁশখালীতে সাবেক বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ইতিহাসে প্রথম বারের মতো ৩টি মামলা হওয়ায় ঘটনাটি সর্বত্র আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছে।কেননা বিএনপি ক্ষমতা হারানোর পর থেকে বাঁশখালীতে থানা পোড়া,আদালত পোড়া,মন্দির ভাংগাসহ বেশ কয়েকটি ভয়ংকর নাশকতার ঘটনা হলেও কখনো তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়নি।গত শুক্রবার বাঁশখালীতে প্রথম বার এক সাথে ৩টি মামলা হয়েছে।

বাঁশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, পুলিশের ওপর হামলাকারী বিএনপি’র দুস্কৃতিকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে রবিবার আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ সমাবেশ করা হবে।বাঁশখালীতে বিএনপি’র দুই পক্ষের কোন্দল দীর্ঘদিনের,বিএনপি’র অর্ন্তকোন্দল ঠেকাতে পুলিশ নিরাপত্তা দিতে গেলে সেখানে বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা করেছে।

দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সভাপতি ও বাঁশখালীর সাবেক সাংসদ সাবেক বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন,পুলিশের সাথে বিএনপি’র কোন শত্রুতা নেই।একটি চক্র পুলিশের ওপর ঢিল ছুড়ে বিএনপি’র নেতা-কর্মীদের ফাঁসিয়েছে।শুনেছি আমি ও আমার ছেলের বিরুদ্ধেও মামলা হয়েছে।কই আমিতো ঘটনার ৫ শত গজ দূরেও ছিলাম না।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)কামাল উদ্দিন বলেন,পুলিশের ওপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে পৃথক পৃথক ৩টি মামলা হয়েছে।এ পর্যন্ত ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।বাঁশখালীর শান্তিপূর্ণ পরিবেশকে কেউ অস্থিতিশীল পরিবেশ করে রক্ষা পাবে না।দুস্কৃতিকারীদের ধরতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে।

উল্লেখ্য,শুক্রবার বিকালে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর এক পর্যায়ে বিএনপি- পুলিশ সংঘর্ষ বাধে। এতে এএসপি(সার্কেল),ওসি,তদন্ত ওসি,আরও ১১ পুলিশসহ ২৮ জন আহত হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.