সত্যের খোঁজে নির্ভূল অনুসন্ধানী

ম্যাচ শেষ হতেই লাথাম-ওয়াগনারদের শুভেচ্ছা পেয়েছে বাংলাদেশ

0

৯৭’র আইসিসি ট্রফি জয়, ৯৯’র বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারানো, ২০০৫ সালে কার্ডিফে অসিদের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয়, ২০০৭’র বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে অবিস্মরণীয় জয়,ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের সঙ্গে টেস্ট জয় ও সবশেষ যুবাদের বিশ্বকাপ জয়-না পারার মাঝেও এমন উল্লেখ করার মত সাফল্য আছে টাইগারদের।তবে সব সাফল্য পিছু ফেলে আজ(৫ জানুয়ারি)ভোরের লাল সূর্য আকাশে উঠতেই এক সোনালি সাফল্যের দেখা মিললো।নিউজিল্যান্ডের মাটিতে পুরো ৪ দিনের বেশি সময় ব্যাটিং-বোলিংয়ে কর্তৃৃত্ব ফলিয়ে,প্রভাব বিস্তার করে যোগ্যতর দল হিসেবে টম লাথামের দলকে ৮ উইকেটে হারিয়ে ঐতিহাসিক এক জয় পেলো বাংলাদেশ।এমন দুর্দান্ত টেস্ট জয়ের পর আনন্দের বন্যায় ভাসছে পুরো বাংলাদেশ।ক্রিকেটাররা ড্রেসিংরুম ও টিম হোটেলেও উৎসব করেছেন।আচ্ছা কিউইদের প্রতিক্রয়া কী? প্রায় সাড়ে চার বছর পর দেশের মাটিতে প্রথম হার। ১৭টি ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর অবশেষে পরাজয়- ব্ল্যাকক্যাপসরা কীভাবে দেখছে এ হারকে?

শুনে অবাক হবেন,টাইগারদের এ জয়ে নিজেরা হতাশায় না পুড়ে মুমিনুল বাহিনীকে কৃতিত্ব দিয়েছেন খোদ কিউই অধিনায়ক টম লাথাম এবং বাঁহাতি ফাস্ট বোলার নেইল ওয়াগনার।বুধবার অবিস্মরণীয় জয়ের পর একান্ত আলাপে এ তথ্য জানিয়েছেন অধিনায়ক মুমিনুল।

তিনি বলেন,‘আমার ইচ্ছে ছিল নিউজিল্যান্ডের নিয়মিত অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসনের সঙ্গে কথা বলার।তবে মাঠেই কথা হলো এ টেস্টের অধিনায়ক লাথাম ও ওয়াগনারের সঙ্গে।তারা আমাদের পুরো দলকে অভিনন্দন জানালো।লাথাম বলেছে,এ ম্যাচে জয় তোমাদেরই প্রাপ্য।তোমরা খুব ভাল ক্রিকেট খেলেছো।প্রতি দিন সবকটা সেশনে আমাদের চেয়ে ভালো পারফরম করেছো।তাই এ খেলায় তোমরাই জয় ডিজার্ভ করো।’

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.