সত্যের খোঁজে নির্ভূল অনুসন্ধানী

রাণীশংকৈল সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে মেয়রের আদালতে মামলা।

0

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল সাব-রেজিস্ট্রারের দুর্নীতি কাজি নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগে আদালতে মেয়রের মামলা।নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অন্তবতীকালিন নিশেধাজ্ঞা জারী করেছে আদালত।

(২ জানুয়ারী)সাব-রেজিস্ট্রার শফি আকরামুজ্জামান জবাব দাখিল করেন বিজ্ঞ আদালতে।মামলা সূত্রে জানা যায়,রাণীশংকৈল উপজেলার বাচোর ইউনিয়নে নিকাহ রেজিস্ট্রার পদটি শূন্য থাকায় ১জন ও পৌরসভায় ২জন কাজি নিয়োগ হওয়ার কথা।কিন্তু গেজেট অনুযায়ী নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু না করেই নিয়োগ কমিটির সদস্য সচিব সাবরেজিস্ট্রার শফি আকরামুজ্জামান দুর্নীতির আশ্রয় গ্রহণ করে গোপনে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।গেজেটে প্রার্থীর বয়স ৩৫ বছর উল্লেখ্য থাকলেও গোপন বিজ্ঞপ্তিতে ৪০ বছর উল্লেখ্য করেছে।নিয়োগ কমিটির উপদেষ্ঠাদের দপ্তরের বিজ্ঞপ্তির নোটিশ দেওয়ার নিয়ম থাকলেও তা তিনি করেননি।

নিয়োগ কমিটির উপদেষ্ঠা ইউএনও’র কার্যালয়ে রেজুলেশন দেখানো হলেও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল সুলতান জুলকার নাইন স্টিভের স্বাক্ষর নেই রেজুলেশনে। তাছাড়া সেই রেজুলেশনে আরেক উপদেষ্ঠা পৌর মেয়র মোস্তাফিজুর রহমানেরও স্বাক্ষর নেই সেখানে।

সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নিয়োগ প্রক্রিয়া না করায় কমিটির উপদেষ্ঠা পৌর মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান দেওয়ানী কার্যবিধি ৩৯ অর্ডার ১রুল ও ১৫১ ধারামতে ঠাকুরগাঁও সহকারি জজ আদালতে অন্তবর্তীকালিন নিশেধাজ্ঞার চেয়ে মামলা করেন।

বিজ্ঞ আদালত ২ দিনের মধ্যে কারন দর্শাইবার জন্য সাব রেজিঃ কে নিদের্শ প্রদান করেন।কিন্তু চতুর সাব রেজিঃ সন্তোষজনক জবাব দাখিল না করে সময়ের আবেদন করেন।২ জানুয়ারী জবাব দাখিলের জন্য আবারো তারিখ নির্ধারণ করেন। এদিকে নিকাহ রেজিস্ট্রার নিয়োগে অনেক প্রার্থী মোটা অংকের অর্থ প্রদান করেছেন মর্মে এলাকায় গুঞ্জন উঠেছে।

এ বিষয়ে মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান বলেন,আমার পৌরসভায় নিকাহ রেজিস্ট্রার নিয়োগ হবে দুর্নীতির আশ্রয়ে এবং অনিয়মভাবে তা মেনে নেওয়ার মতো নয়। তাই আমি আদালতের আশ্রয় গ্রহন করেছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির স্টিভ বলেন,আমার অফিসে নিয়োগ কমিটির সভা দেখানো হলো অথচ আমার স্বাক্ষর নেই,বিষয়টি বুঝে নেন।যে কোন অনিয়ম আল্লাহ সহ্য করবেনা,মেয়রকে সয়ং আল্লাহ আমার হয়ে আদালতে পাঠিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে নিয়োগ কমিটির সদস্য সচিব সাবরেজিস্ট্রার শফি আকরামুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, যেহেতু কোটে মামলা হয়েছে এটা নিয়ম অনিয়মের বিষয়টি কোর্ট বুঝবে। তাছাড়া আজকে রবিবার কোর্টে জবাব দাখিল করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.