২৭ বছর আগে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে এক কিশোরীর মুখমণ্ডল ঝলসে দেওয়ার অপরাধে আবুল কালামকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা জজ আদালত।

0 ১০৮,১৫৮

২৭ বছর আগে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে এক কিশোরীর মুখমণ্ডল ঝলসে দেওয়ার অপরাধে আবুল কালাম(৫৫)নামে এক ব্যক্তিকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা জজ আদালত।একইসাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।এছাড়া একই মামলার ৪ জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।বৃহস্পতিবার(২৫ আগস্ট)দুপুরে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা জজ আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল মামুন এ রায় ঘোষণা করেন।এসময় আসামি আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন।পরে তাকে কক্সবাজার কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সাজাপ্রাপ্ত আবুল কালাম চকরিয়া উপজেলার বদরখালির ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মাতারবাড়ি পাড়ার আকবর আহমেদর ছেলে।খালাসাপ্রাপ্তরা হলেন আবুল কালামের দুই ভাই শাহাবুদ্দিন ও নূর কালাম,একই গ্রামের আবদুর রহমানের ছেলে কবির আহমেদ এবং চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার উত্তর কলাইজান গ্রামের মুস্তাফিজুর রহমান প্রকাশ মদন মিয়ার ছেলে ইউনুছ।

মামলার এজাহারের তথ্য মতে, ১৯৯৫ সালের ২৮ জুলাই সকাল ৭টায় মাতারবাড়ি পাড়ার মৃত মোহাম্মদ আলমের মেয়ে হাসিনা বেগম(১৬) ও তার দুই চাচাত ভাই বসতবাড়ির ভেতরে লেখাপড়া করছিল।হঠাৎ আবুল কালাম ও তার ৪ সঙ্গী হাসিনার কক্ষে ঢুকে।অস্ত্রের মুখে তাদেরকে জিম্মি করে ফেলে।তখন আবুল তার হাতে থাকা দুই বোতল অ্যাসিড হাসিনার মুখে নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়।এ ঘটনায় ১০ আগস্ট চকরিয়া থানা মামলা করেন হাসিনা বেগম।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা জজ আদালতের অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি সুলতানুল আলম বলেন,১৯৯৬ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি এসিড নিক্ষেপের ঘটনায় ৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা।৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করার পর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।দীর্ঘ ২৭ বছর পর সেই মামলার রায় হলো বৃহস্পতিবার।এতে একজনের ১০ বছরের সাজা ও বাকিদের খালাস দেওয়া হয়।আদালত মনে করেছেন শুধুমাত্র অ্যাসিড নিক্ষেপকারীর সাজা হওয়ার দরকার।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.