চট্টগ্রামে প্রতারণা, ৪ দিনের রিমান্ডে রিজেন্ট হাসপাতালের শাহেদ

0 ১১০

চট্টগ্রাম প্রতিদিন নিউজ: করোনার টেস্ট রিপোর্ট কেলেঙ্কারিতে দেশজুড়ে আলোচিত প্রতারক রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ করিমের ৪ দিনের রিমান্ড আদেশ দিয়েছে আদালত। রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত এ আদেশ দেন।এর আগে দুপুর সোয়া ১টার দিকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার জাহানের আদালতে শাহিদ করিমকে হাজির করা হয়। পরে তাকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালতে শুনানির জন্য রেফার করা হয়।শাহিদ করিমের রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম নগর পুলিশের (সিএমপি) সহকারি কমিশনার প্রসিকিউশন কাজী সাহাব উদ্দিন বলেন, ‘প্রতারণা মামলায় আলোচিত শাহেদ করিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাষ্ট্রপক্ষ রিমান্ড আবেদন করলে মাননীয় আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।’এর আগে শনিবার (১০ অক্টোবর) বিকাল সোয়া ৩টায় মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়।চলতি বছরের ১৩ জুলাই চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানায় রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ও শহীদুল্লাহ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রতারণার মাধ্যমে ৯১ লাখ ২৫ হাজার টাকা টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে মামলা করেন চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী সাইফুদ্দিন মহসীন।ওই মামলায় সাহেদের বিরুদ্ধে নগদ ৩২ লাখ এবং চেকের মাধ্যমে ৫৯ লাখ ২৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ আনা হয়। ঢাকায় ২০০টি তিন চাকার গাড়ি নামানোর অনুমোদন সরকার থেকে নিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চের মধ্যে সাহেদ এই টাকা হাতিয়ে নেন বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়।ঢাকায় ২০০ তিন চাকার গাড়ি নামানোর অনুমোদন নিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর প্রতারক সাহেদ একটি অনুমোদনও নিয়ে দেন। কিন্তু সেটিও ছিল ভুয়া।চট্টগ্রাম নগরের ডবলমুরিংয়ের ধনিয়ালাপাড়ার মেগা মোটরর্সের মালিক জিয়াউদ্দিন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরের পক্ষে তার চাচাতো ভাই সাইফুদ্দিন মহসীন মামলাটি দায়ের করেন।মামলার এজাহারে সাইফুদ্দিন দাবি করেছেন, তাদের ঢাকার ব্যবসায়িক কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক শহীদুল্লাহর মাধ্যমে মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের সঙ্গে ২০১৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ফেনীর ছাগলনাইয়ায় একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে পরিচয় হয়।এরপর আলাপচারিতার ফাঁকে তাদের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স মেগা মোটরসের আমদানি করা থ্রি-হুইলার ঢাকা সিটিতে চলাচলের রুট পারমিটসহ চলাচলের আনুষঙ্গিক কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি নিয়ে দেওয়ার বিষয়ে আশ্বস্ত করে মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিম।এই পারমিট নিয়ে দেওয়ার নাম করে ২০১৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চের মধ্যে মেগা মোটরসের কাছ থেকে নগদ ৩২ লাখ এবং চেকের মাধ্যমে ৫৯ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে মামলার এজাহারে।টাকা নেওয়ার পরে একটি অনুমোদনও নিয়ে দেন সাহেদ,যা ছিল ভুয়া। এরপর টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য সাহেদকে চাপ দেওয়া হয়। সাহেদ প্রভাব খাটিয়ে উল্টো ভয়ভীতি দেখিয়েছেন।এই ঘটনায় জিয়াউদ্দিন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর অসুস্থ হয়ে পড়ায় ও আলোচনার ভিত্তিতে বিষয়টি মীমাংসা করতে গিয়ে মামলা দায়েরে বিলম্ব হয়েছে বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.