সত্যের খোঁজে নির্ভূল অনুসন্ধানী

পুরো শহরে লকডাউন জারি,৩ জনের করোনা

0

এক শহরের তিন জনের করোনা শনাক্ত হওয়ায় পুরো শহরেই লকডাউন জারি করেছে চীন। মঙ্গলবার চীনের মধ্যাঞ্চলীয় ইউঝৌ শহরে ১১ লাখের বেশি মানুষকে বাড়িতেই থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়।উপসর্গহীন তিন করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর মঙ্গলবার কর্তৃপক্ষ শহরজুড়ে লকডাউন জারি করে।

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে জিরো কোভিড নীতি অনুসরণ করছে চীন।এরই মধ্যে সীমান্তে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে।এছাড়া প্রথম করোনা শনাক্তের পর থেকেই একের পর এক শহরে লকডাউন জারি রয়েছে।

হেনান প্রদেশের ইউঝৌ শহরে ১১ লাখের বেশি মানুষের বসবাস।সোমবার রাতে পুরো শহরের বাসিন্দাদের বাড়িতেই অবস্থানের নির্দেশ দেওয়া হয়।করোনা সংক্রমণের গতি রোধ করতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

গত কয়েকদিনে তিন জনের দেহে নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর কর্তৃপক্ষ আবারও বিধিনিষেধ জারি করলো।মধ্যাঞ্চলের লোকজন বাড়ির বাইরে যেতে পারবে না বলে সোমবার এক বিবৃতিতে প্রকাশ করা হয়েছে।

এরই মধ্যেই শহরের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে,তারা বাস এবং ট্যাক্সি চলাচল স্থগিত করেছে।এছাড়া শপিংমল,জাদুঘর এবং পর্যটন এলাকা বন্ধ রাখা হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার চীনে নতুন করে ১৭৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।এর মধ্যে পাঁচজন হেনান প্রদেশের এবং আটজন পূর্বাঞ্চলীয় নিংবো শহরের একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের পরিস্থিতি তুলনা করলে চীনে বর্তমানে করোনা সংক্রমণের হার খুবই কম। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়।সে সময় দেশটিতে সংক্রমণের হার ছিল বেশ আশঙ্কাজনক।

মঙ্গলবার শিয়ান শহরে নতুন করে ৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।ঐতিহাসিক ওই শহরের বাসিন্দা প্রায় দেড় কোটি।প্রায় দুসপ্তাহ ধরে ওই শহরে লকডাউন জারি রয়েছে।গত ৯ ডিসেম্বর থেকে এখন পর্যন্ত ওই শহরে এক হাজার ৬শর বেশি কেস শনাক্ত হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.