সত্যের খোঁজে নির্ভূল অনুসন্ধানী

বোলারের নাম দেখে নয়, বল দেখে খেলেছি: জয়

0

ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির সম্ভাবনার প্রদীপ জ্বালিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ করেছিলেন মাহমুদুল হাসান জয়।তবে তৃতীয় দিন আর বেশিক্ষণ জ্বলেনি সেই প্রদীপ।ব্যক্তিগত ৭০ রানের সঙ্গে আর ৮ যোগ করতেই স্ট্যাম্পের বাইরের বল খেলতে গিয়ে সাজঘরে ফিরেছেন এ তরুণ ডানহাতি ওপেনার।তবে সেঞ্চুরি না পেলেও,বিদেশের মাটিতে প্রথমবার খেলতে নেমেই ২২৮ বলে ৭৮ রানের ইনিংসে দলকে শক্ত ভিত গড়ে দিয়েছেন জয়। যার সুবাদে এরই মধ্যে ৭৩ রানের লিড পেয়ে গেছে মুমিনুল হকের দল।তৃতীয় দিনের খেলা শেষে নিজের ব্যাটিং সম্পর্কে কথা বলেছেন জয়।

ট্রেন্ট বোল্ট,কাইল জেমিসন,নেইল ওয়াগনার ও টিম সাউদি যেকোনো কন্ডিশনেই রীতিমতো আতঙ্কের নাম।আর দেশের মাটিতে তাদের বিপক্ষে খেলতে নামা এক অসম যুদ্ধে অবতীর্ণ হওয়ার সমান।তবে মাহমুদুল জয় প্রথমবার এই যুদ্ধে নেমে সাফল্যের দেখাই পেয়েছেন।তার সাফল্যের পেছনে ছিল বোলারদের নামের পরিবর্তে বল দেখে খেলার মন্ত্র।জয় বলেছেন, ‘নিউজিল্যান্ড দলের পেস বোলিং আক্রমণ বিশ্বসেরা।ওরা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপাজয়ী দল।আমি এক্ষেত্রে আমার স্বাভাবিক খেলাটাই খেলার চেষ্টা করেছি।ওদের বোলারদের নাম না খেলে বল দেখে খেলার চেষ্টা করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার পরিকল্পনা ছিল রানের দিকে না গিয়ে বেশি বেশি বল খেলার।আমি বেশি বল খেলতে পারলে রান এমনিতেই আসবে। আমার সঙ্গী যারা ছিল,সাদমান ভাই,শান্ত ভাই,মুমিনুল ভাই-সবাই একই কথা বলেছে।এটিই ছিল উইকেটে শান্ত থাকার কারণ।’

দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরুর আগে একটি দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ।যেখানে ৬৬ রান করেছিলেন জয়।সেই ম্যাচের প্রস্তুতিটা মূল ম্যাচেও কাজে লেগেছে তার, ‘মূল ম্যাচের আগে যে প্রস্তুতি ম্যাচটা খেলেছি,সেটা অনেক কাজে দিয়েছে।সেখান থেকেই আমি আত্মবিশ্বাস পাই যেটা মূল ম্যাচে মোটামুটি পারফর্ম করতে সাহায্য করেছে।’

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.